July 21, 2019
  • লক্ষ্য এখন পুষ্টি চাহিদা পূরণ: প্রধানমন্ত্রী
  • খালেদার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন ৫ সেপ্টেম্বর
  • সেই গবেষকের পক্ষে সরব দেশ, নীরব ঢাবি শিক্ষক সমিতি!
  • ‘সরকারি সেবামূলক অফিস দালালমুক্ত করা হবে’
  • রিফাত হত্যাকাণ্ড : এবার রিশান ফরাজীও গ্রেফতার
  • সূচকের উত্থান চলছে লেনদেন
  • জাপানে অ্যানিমেশন স্টুডিওতে অগ্নিকাণ্ডে ৩৮ জন দগ্ধ
  • খুলনায় ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় পাঁচজনের ফাঁসি
  • রিফাত হত্যা, মিন্নিকে নিয়ে গেছে পুলিশ
  • নীলক্ষেত অবরোধ ৭ কলেজের শিক্ষার্থীদের

সু চি’র খেতাব প্রত্যাহার করল অ্যামনেস্টি

suchi111
বাংলার নিউজ ডট কমঃ রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিস্ময়কর অবস্থান নেওয়ার কারণে মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চিকে দেওয়া সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘অ্যাম্বাসেডর অব কনসান্স’ ফিরিয়ে নিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল।

গতকাল সোমবার এক বিবৃতিতে সংস্থাটি জানায়, রাখাইনে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর মিয়ানমার সেনাদের বর্বরোচিত নৃশংসতার বিষয়ে নিরব থাকায় তাকে দেয়া পুরস্কারটি ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে। ৯ বছর আগে ২০০৯ সালে সু চি’কে তাকে পুরস্কারটি দিয়েছিলো সংস্থাটি।

উল্লেখ্য, শান্তিতে নোবেলজয়ী এই রাজনীতিবিদকে তার দেশে গৃহবন্দি থাকাকালে তাকে সর্বোচ্চ সম্মাননাটি প্রদান করে। বহু পুরস্কারে ভূষিত গণতন্ত্রের নেত্রী খেতাবপ্রাপ্ত সু চির সর্বশেষ বড় কোনো পুরস্কার ছিল এটি।

গত রোববার সু চিকে লেখা এক চিঠিতে বিষয়টি জানিয়েছেন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের মহাসচিব কুমি নাইড়ু। চিঠিতে পুরস্কার প্রত্যাহারের কারণ হিসেবে বলা হয়, সু চি মিয়ানমারের মানবাধিকার প্রশ্নে, তার আগের নৈতিক অবস্থানের সঙ্গে লজ্জাজনকভাবে প্রতারণা করেছেন।

মানবাধিকার সংগঠনটি বলছে, সু চি সরকারের মেয়াদ অর্ধেকের বেশি পূরণ হলেও, মানবাধিকার-ন্যায়বিচার ও সমতা নিশ্চিত করতে, রাজনৈতিক ও নৈতিক অবস্থান কাজে লাগাননি। বরং রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমার সেনাবাহিনী পরিচালিত নৃশংসতায় সু চি উদাসীনতা দেখিয়েছেন।

চিঠিতে বলা হয়, ‘মানবাধিকারের জন্য আমৃত্যু লড়াইরত এবং আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতীক হিসেবে আপনাকে আমরা আর দেখছি না।’

বিভাগ - : আন্তর্জাতিক

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন