April 21, 2019
  • বেতনের দাবিতে বাড্ডায় সড়ক অবরোধে পোশাক শ্রমিকরা
  • ‘আমার পিতা শেখ মুজিব’ উৎসবের উদ্বোধন আজ
  • মেক্সিকোতে বন্দুকধারীদের হামলায় নিহত ১৩
  • ময়মনসিংহে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪
  • চাঁপাইনবাবগঞ্জে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত
  • জরুরি সফরে ঢাকায় আসছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব
  • পদ্মা সেতুর একাদশ স্প্যান বসবে ২৩ এপ্রিল
  • ধর্মীয় বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবো না : হাইকোর্ট
  • ব্রিটেনে তারেক-জোবাইদার ব্যাংক হিসাব জব্দের নির্দেশ
  • দুর্যোগে করণীয় নিয়ে ব্যাপক প্রচারের নির্দেশনা প্রধানমন্ত্রীর

রাজশাহীতে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৪

sarak7
বাংলার নিউজ ডট কমঃ রাজশাহীর তানোর ও পুঠিয়ায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় এক স্কুলছাত্রসহ চারজন নিহত হয়েছে। এদের মধ্যে তানোরে ভুটভুটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে গাছে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলেই দুইজন নিহত হয়।

অপরদিকে পঠিয়ায় ট্রাকচাপায় মোটরসাইকেলের দুই আরোহী নিহত হয়। রবিবার সকালে এ দুর্ঘটনা দুটি ঘটনা ঘটে।

তানোরে নিহতরা হলো, মাহাফুজ (১৪) ও সাব্বির (১৬)। মাহাফুজ উপজলোর চাঁন্দুড়িয়া ইউনিয়নের হাড়দো সিলিমপিুর গ্রামের মান্নান আলীর ছেলে। সে ডা. আবুবক্কর স্কুল অ্যান্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী। সাব্বির একই এলাকার শরিফুলের ছেলে।

স্থানীয়রা জানায়, শনিবার সকাল ৭টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে অসুস্থ একজনকে ভর্তি করে ভুটভুটিতে করে মাহাফুজ ও সাব্বির বাড়ি ফিরছিলেন। পথে তানোর-রাজশাহী সড়কের হাড়দো-বাগধানী মোড়ের পৌঁছানোর পর হঠাৎ নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদের ভুটভুটি রাস্তার গাছের সঙ্গে ধাক্কা লাগে। এতে ঘটনাস্থলইে প্রাণ হারায় তারা।

তানোর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল ইসলাম বলেন, বেপরোয়া গতির কারণেই দুর্ঘটনাটি ঘটেছে। নিহতদের স্বজনরা কোনো অভিযোগ না করায় মরদেহ দুটি ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

অপরদিকে পুঠিয়ায় নিহতরা হলো, রাজশাহী নগরীর বিমানবন্দর থানার বৈরাগিপাড়া এলাকার জেকের আলীর ছেলে ইমন আলী (২৪) ও একই থানার তকিপুর এলাকার নজরুল ইসলামের ছেলে সুজন ইসলাম (২৬)।

রাজশাহীর পবা হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মুস্তাফিজুর রহমান জানান, রবিবার সকালে একটি পণ্যভর্তি ট্রাক রাজশাহী থেকে নাটোরের দিকে যাচ্ছিল। ট্রাকটি রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়কের তারাপুর নামক স্থানে এলে পেছন থেকে মোটরসাইকেলটিকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই চালক ইমন আলী মারা যান।

এ সময় স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় সুজনকে উদ্ধার করে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। বর্তমানে তার লাশ হাসপাতালে রয়েছে। এছাড়া ইমনের লাশ হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়িতে আছে।

ট্রাকটি চাপা দেয়ার পর পালিয়ে গেছে। ট্রাকটি আটকের জন্য চেষ্টা চলছে। দু’জন নিহতের এ ঘটনায় মামলা হবে।

বিভাগ - : আঞ্চলিক সংবাদ

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন