May 23, 2019
  • বিচারাধীন মামলার সংবাদ পরিবেশনের ব্যাখ্যা দিলেন সুপ্রিম কোর্ট
  • ঋণখেলাপিদের বিশেষ সুবিধা দেয়া সার্কুলারে স্থিতাবস্থা হাইকোর্টের
  • ২ লাখ ২ হাজার ৭২১ কোটি টাকার এডিপি অনুমোদন
  • দুধ ও দুগ্ধজাত খাদ্য পণ্যের নমুনা পরীক্ষার নির্দেশ
  • ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে কাজ চলমান, ঈদে ভোগান্তির আশঙ্কা
  • সূচকের পতনে লেনদেন শেষ
  • পঞ্চম ধাপের মনোনয়ন দাখিলের শেষ দিন মঙ্গলবার
  • আওয়ামী নেতাদের আশ্বাসে পদবঞ্চিতদের আন্দোলন স্থগিত
  • ঢাকা ও চট্টগ্রামে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ৩ ছিনতাইকারী
  • যুক্তরাষ্ট্রের সাথে যুদ্ধ হলে ইরান ধ্বংস হয়ে যাবে: ট্রাম্প

রাজধানীসহ তিন জেলায় বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২, গুলিবিদ্ধ ১

bonduk
বাংলার নিউজ ডট কমঃ রাজধানীর শ্যামলী, কক্সবাজারের টেকনাফ এবং চট্টগ্রামের কোতোয়ালি থানা এলাকায় বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশের সঙ্গে পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই জন নিহত এবং একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে।

এরমধ্যে বুধবার (২০ ফেব্রুয়ারি) ভোর ৬টার দিকে শ্যামলীতে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালের সামনের সড়কে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মেহেদী হাসান (৩২) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। র‌্যাবের দাবি সে একজন মাদক বিক্রেতা।

র‌্যাব-২ এর কোম্পানি কমান্ডার (এসপি) মুহাম্মদ মহিউদ্দিন ফারুকী জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, নিহতের মরদেহের সঙ্গে থাকা জাতীয় পরিচয়পত্র ও ড্রাইভিং লাইসেন্স যাচাই করে তার নাম-পরিচয় নিশ্চিত হওয়া গেছে।

র‌্যাবের দাবি ঘটনার পর নিহতের কাছ থেকে একটা বিদেশি পিস্তল, পাঁচ রাউন্ড গুলি, ৩০০ গ্রাম হেরোইন, নগদ এক হাজার ৬৫০ টাকা, একটি জাতীয় পরিচয়পত্র, একটি ড্রাইভিং লাইসেন্স ও বাসের পাঁচটি টিকেট উদ্ধার করা হয়েছে।

এসপি মহিউদ্দিন জানান, মাদক ব্যবসায়ীদের একটি গ্রুপ চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে বাসযোগে মাদকসহ ঢাকায় আসছে গোপন সূত্রে এমন সংবাদ পেয়ে র‍্যাব রাজধানীর গাবতলী, দারুসসালাম ও কল্যাণপুরে অবস্থায় নেয়। একটি বাসকে লক্ষ্য করে র‍্যাব তার পিছু নেয়। শ্যামলী এলাকায় বাস থেকে কয়েকজন যাত্রী নামলে র‌্যাব সদস্যরা তাদের তল্লাশি করেন। এর মধ্যেই একজন বাস থেকে নেমে তল্লাশি করা দেখে হাঁটতে থাকেন। এ সময় র‌্যাব সদস্যরা পেছন থেকে তাকে ডাকতেই র‌্যাবকে লক্ষ্য করে কয়েকজন গুলি ছুঁড়তে থাকে।

এ সময় আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি করে। পরে ঘটনাস্থলে একজনকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। গোলাগুলির সময় হাসপাতালের পেছন দিয়ে আরও তিন-চারজন পালিয়ে যান বলেও জানান তিনি।

টেকনাফে নিহত ১

এদিকে কক্সবাজারের টেকনাফে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. জাফর আলম (২৬) নামের এক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাতে গ্রেফতারের পর বুধবার ভোর সাড়ে ৪টার দিকে বিজিবির সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন তিনি। টেকনাফ-২ বিজিবির পরিচালক লে. কর্নেল মো. আছাদুদ-জামান চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিজিবি জানিয়েছে, এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ৫ হাজার পিস ইয়াবা ও একটি আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করা হয়। নিহত জাফর টেকনাফ উপজেলার নয়াপাড়া মুছনী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের শালবাগান ‘এ’ ব্লকের দ্বীন মোহাম্মদের ছেলে।

চট্টগ্রামে গুলিবিদ্ধ ১

এছাড়া চট্টগ্রামে অপর এক বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় আসলাম হোসেন ওরফে ইমন ওরফে আলমাছ নামে একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন দুই পুলিশ সদস্য।

পুলিশ জানিয়েছে গুলিবিদ্ধ আসলাম একজন চিহ্নিত ছিনতাইকারী। মঙ্গলবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাত দেড়টার দিকে একদল ছিনতাইকারীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধের সময় আসলাম হোসেন ওরফে ইমন ওরফে আলমাছ গুলিবিদ্ধ হয়ে তাদের হাতে ধরা পড়েছে।

কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসিন জাগো নিউজকে জানান, গোপান সংবাদের ভিত্তিতে রাতে দুর্ধর্ষ ছিনতাইকারী ও ডাকু আসলাম হোসেন ওরফে ইমনকে গ্রেফতারের জন্য মহানগরীর বোস ব্রাদার্স মোড়ে অভিযানে যায় পুলিশ। এ সময় আসলাম বাহিনী পুলিশের ওপর হামলা চালায়। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা হামলা চালালে দু’পক্ষের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধ হয়। পরে ঘটনাস্থলে ডাকু আসলামকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় পাওয়া যায়। ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় এলজি ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

বিভাগ - : আইন ও অপরাধ, আঞ্চলিক সংবাদ

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন