February 18, 2019
  • নির্বাচন যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয়: ইসি
  • মঙ্গলবার আখেরি মোনাজাত
  • রাজধানীতে ডাস্টবিন থেকে গুলি-গ্রেনেড উদ্ধার
  • অভিজিৎ হত্যার ৪ বছর পর চার্জশিট দিল পুলিশ
  • জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব নিয়ে সচেষ্ট হতে হবে : প্রধানমন্ত্রী
  • মঙ্গলবার রাজধানীতে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে
  • নিউ লাইন ক্লোথিংসের আইপিও আবেদন শুরু
  • সূচকের নেতিবাচক প্রবণতায় চলছে লেনদেন
  • পুলওয়ামায় ফের জঙ্গি হামলায় ৪ সেনা নিহত
  • শিগগিরই এমপিভুক্ত হচ্ছে দুই হাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

ময়মনসিংহে পৃথক বন্দুকযুদ্ধে নিহত ২

bonduk
বাংলার নিউজ ডট কমঃ ময়মনসিংহে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুই ব্যক্তি নিহত হয়েছেন বলে দাবি করেছে গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

গতকাল শুক্রবার দিবাগত মধ্যরাতে সদর ও মুক্তাগাছা উপজেলায় এ দুটি ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে বলে ময়মনসিংহ ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. শাহ কামাল আকন্দ দাবি করেছেন।

নিহতরা হলেন- ফুলবাড়িয়া থানার আমদালিয়া গ্রামের মো. আব্দুল্লাহ হেল কাফি (৩১) ও সদর উপজেলার আলমাগীর (২৭)। পুলিশের ভাষ্য, তাদের বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে।

কথিত বন্দুকযুদ্ধ সম্পর্কে ওসির ভাষ্য, শুক্রবার মধ্যরাতে মুক্তাগাছার রসুলপুর ঝলই ব্রিজ এলাকায় ডাকাতরা ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল। গোপন সূত্রে পুলিশ এ খবর পেয়ে সেখানে অভিযান চালায়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা গুলি চালায়। ডাকাতের গুলিতে আহত হন তিন পুলিশ সদস্য। তখন পুলিশও আত্মরক্ষার্থে শটগানের ফাঁকা গুলি ছুড়ে।

‘পরে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আব্দুল্লার হেল কাফিকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। কাফির কাছ থেকে কাঠের বাটযুক্ত এলজি বন্দুক ও দুটি কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে।’

ওসি আরো দাবি করেন, অপর ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনাটি ঘটেছে সদর থানায় রাত দেড়টার দিকে। ওই ঘটনা সম্পর্কে তার ভাষ্য, মাদকবিরোধী অভিযান চলাকালে কোতোয়ালী থানার সাহেব কাচারী দরিয়াপুর মাঠ সড়কের সামনে মাদক ব্যবসায়ীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি করে এবং ঢিল ছুড়ে। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে শটগানের ফাঁকা গুলি করে।

‘একপর্যায়ে মাদক ব্যবসায়ীরা গুলি করতে করতে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে মাদক ব্যবসায়ী আলমাগীরকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।’

ওসি আরো দাবি করেন, এ দুটি ঘটনায় ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মো. নাজিম উদ্দিন, সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মো. মজিদ, কনস্টেবল ইব্রাহীম, সাইদুল ইসলাম ও আরমান উদ্দিন আহত হয়। এ সময় সেখান থেকে দুই কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়।

বিভাগ - : আইন ও অপরাধ, আঞ্চলিক সংবাদ

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন