August 18, 2019
  • ডেঙ্গু প্রতিরোধে সেনানিবাসে পরিচ্ছন্নতা অভিযান
  • ভার‌তের সা‌বেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ মারা গে‌ছেন
  • সুষমা স্বরাজের মৃত্যুতে শেখ হাসিনার গভীর শোক
  • ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ২০ মামলার আসামিসহ নিহত ২
  • বিনিয়োগকারী ও গণ মাধ্যমকে দায়িত্বশীল হওয়ার আহবান
  • যুক্তরাষ্ট্রে গুলিবর্ষণের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর নিন্দা
  • সম্প্রচার খাতে শৃঙ্খলা ফেরাতে কাজ চলছে: তথ্যমন্ত্রী
  • ফখরুলসহ বিএনপির চার নেতাকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ
  • ফটোসেশন করলে হবে না, কাজ করুন: ওবায়দুল কাদের
  • মশা মারতে গিয়ে যুবকের মৃত্যু

বরিশালে ডেঙ্গুতে ২ জনের মৃত্যু

2dd
বাংলার নিউজ ডট কমঃ ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে বরিশাল শের-ই বাংলা মে‌ডি‌কেল ক‌লেজ হাসপাতা‌লে (শেবাচিম) দুই রোগীর মৃত্যু হয়েছে। তারা হলেন- আসলাম খান (২৪) ও সোহেল (১৮)।

সোমবার (২৯ জুলাই) দিবাগত রাতে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেন হাসপাতালের পরিচালক ডা. বাকির হোসেন।

মৃত আসলাম খান বরিশালের বাকেরগঞ্জের শ্যামপুর এলাকার নাসির খানের ছেলে ও সোহেল পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলার গোসনতারা এলাকার আদম আলীর ছেলে।

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. বাকির হোসেন জানান, মৃত আসলাম খান সোমবার (২৯ জুলাই) দিনগত রাত সাড়ে ৯টার দিকে শেবাচিম হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের ৩ নম্বর ইউনিটে ভর্তি হন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত সোয়া ৩টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

অপরদিকে সোহেলকে সোমবার রাত দেড়টার দিকে শেবাচিম হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের ৩ নম্বর ইউনিটে ভর্তি করান তার স্বজনরা। রাত পৌনে ৪টার দিকে তিনি মারা যান।

তিনি জানান, এখন পর্যন্ত বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৬৩ জন ডেঙ্গু রোগী। এর মধ্যে বর্তমানে ২৪ জন ভর্তি রয়েছে। বাকিরা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন।

পরিচালক ডা. বাকির হোসেন বলেন, উভয় রোগী আগে থেকেই ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত ছিলেন। ঢাকায় তাদের ডেঙ্গু জ্বর শনাক্ত হওয়ার পরও সঠিকভাবে চিকিৎসা না করিয়ে তারা কেন বাড়িতে এসেছেন তা জানি না। তারা খুবই খারাপ অবস্থায় এসেছিলেন। বিষয়টি আমাদের জন্য খুবই দুঃখজনক যে, আমাদের হাসপাতালে দুজন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর মৃত্যু হলো।

অপরদিকে হাসপাতালের ওয়ার্ডে শয্যা না পেয়ে অনেক রোগীর স্থান হচ্ছে মেঝেতে বা বারান্দায়। বাড়তি রোগীর চাপে ওয়ার্ডগুলো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখতেও হিমশিম খাচ্ছেন কর্মীরা।

ডেঙ্গু পরীক্ষার জন্য সরকার সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা ফি নির্ধারণ করে দিলেও বাইরের বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারগুলো দেড় থেকে কয়েক হাজার টাকা পর্যন্ত ফি আদায় করছে বলে অভিযোগ করেছেন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রোগী ও তাদের স্বজনরা।

বিভাগ - : আঞ্চলিক সংবাদ, জাতীয়

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন