June 17, 2019
  • ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেফতার
  • ইন্টারনেটে ভুয়া খবরের শিকার ৮৬ শতাংশ মানুষ
  • যোগ্য কর্মকর্তাদের হাতে নেতৃত্ব দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
  • রবিবার মধ্যরাতে পঞ্চম ধাপের উপজেলা নির্বাচনের প্রচার শেষ
  • ক্যাম্প থেকে পালিয়ে গ্রামে গ্রামে ঢুকে পড়ছে রোহিঙ্গারা
  • ‘আরো আড়াই লাখ মেট্টিক টন ধান কিনবে সরকার’
  • আজ জাতীয় শিশু পুরস্কার-২০১৯ প্রদান করবেন রাষ্ট্রপতি
  • বিজিবি-বিএসএফ সীমান্ত সম্মেলন শুরু আজ
  • সূচকের পতনে চলছে লেনদেন
  • ১৯ জেলায় নতুন জেলা প্রশাসক

প্রথম সংবাদ সম্মেলনে কোনো প্রশ্নের উত্তর দিলেন না মোদি!

mddi
বাংলার নিউজ ডট কমঃ ভারতের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রথম সংবাদ সম্মেলনের কোনো প্রশ্নের উত্তর দিলেন না নরেন্দ্র মোদি। শুক্রবার বিকেলে দিল্লিতে আয়োজিত এই সম্মেলনে তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।

তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দিলেও পাশে বসে থাকা মোদি শুধু নিজের বক্তব্যই পেশ করেন। যা নিয়ে বেশ হাসিঠাট্টাই হচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সম্পূর্ণ সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে সরকার চালানোর পর ফের সংখ্যাগরিষ্ঠ হিসেবে ক্ষমতা ফেরার ঘটনা আমাদের দেশে কোনোদিন হয়নি। কিন্তু এবার মানুষের আর্শীবাদে সেই ঘটনাই ঘটতে চলেছে।

২০১৪ সালে প্রধানমন্ত্রী পদে বসার পর একবারও সংবাদ সম্মেলন করেননি মোদি। তবে নিজের পছন্দ মতো কয়েকটি সংবাদমাধ্যমে তিনি সাক্ষাৎকার দেন। যা নিয়ে আজও তাকে কটাক্ষ করে বিরোধী দলগুলো। শুক্রবার সেই প্রধানমন্ত্রী নিজের পাশে বসিয়ে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হলেন অমিত শাহ।

লোকসভা নির্বাচনের প্রচার শেষের পর দলের দৃষ্টিভঙ্গি প্রকাশ করার জন্য এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

যদিও শুক্রবারের এই সম্মেলনে অংশ নিয়ে হতাশ হয়েছেন খোদ সাংবাদিকরাই। কারণ পাঁচ বছরে এই প্রথম প্রধানমন্ত্রীকে প্রশ্ন করার সুযোগ পেয়েছিলেন তারা। কিন্তু তাদের কোনো প্রশ্নের জবাব দেননি মোদি। নিজের বক্তব্য পেশ করার পরেই মৌনব্রত ধারণ করেন! তাকে প্রশ্ন করলেও তার জবাব অমিত শাহ দেবেন বলেও উল্লেখ করেন।

এদিন সংবাদ সম্মেলনে কোনো প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশগ্রহণ না করার পেছনে কারণ হিসেবে মোদি জানান, এই সংবাদ সম্মেলন আহবান করেছেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ এবং বিজেপির দলের নিয়ম অনুযায়ী সেই বৈঠকে তিনি সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে পারেন না। এই বলেই তিনি সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখোমুখি হওয়া এড়িয়ে যান।

যা নিয়ে পরে কটাক্ষ করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। টুইট করেন, অভিনন্দন মোদিজি, অসাধারণ সংবাদ সম্মেলন! অর্ধেক যুদ্ধ জিতেই গেছেন। আশা করি পরেরবার মিস্টার শাহ আপনাকে কিছু প্রশ্নের হয়তো উত্তর দিতে দেবেন।

বিষয়টি থেকে মজার খোরাক সংগ্রহ করেছেন নেটিজেনরাও। মোদি-শাহ জুটির সংবাদ সম্মেলনের পর সোশ্যাল মিডিয়াতে যেন কটাক্ষের ঝড় বয়ে যায়! একজন গুগুলে প্রেস কনফারেন্স লিখে সার্চ করে তার ছবি পোস্ট করেন টুইটারে। নিচে লেখা, আমার মনে হয় গুগুল মানে বুঝতে ভুল করেছে। আর আমাদেরও ভুল বোঝাচ্ছে। কারণ নরেন্দ্র মোদির কাছে এসে প্রেস কনফারেন্সের মানেই বদলে যায়। গুগুলের হিসেব মেনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেন না তিনি।

একজন তো আবার বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার প্রতিবাদে দিল্লিতে বিজেপি যে মৌন বিক্ষোভ দেখিয়েছিল তার ছবি পোস্ট করেন। ওই ছবিতে দেখা যাচ্ছে নির্মলা সীতারমণসহ বিজেপি নেতা-নেত্রীরা মুখে আঙুল দিয়ে রেখেছেন। আর ওই ছবির নিচে লেখা আছে, মোদিজি তার প্রথম ও শেষ সংবাদ সম্মেলনের সময়।

একজন লিখেছেন, তিনি এলেন, বসলেন, বক্তব্য রাখলেন, মুখে অঙ্গভঙ্গি করলেন এবং সব শেষে চলে গেলেন। আরেক নেটিজেন আবার অমিত শাহের পাশে মোদিজির কাটআউট বসানো ছিল কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন।

বিভাগ - : আন্তর্জাতিক

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন