June 17, 2019
  • ওসি মোয়াজ্জেম গ্রেফতার
  • ইন্টারনেটে ভুয়া খবরের শিকার ৮৬ শতাংশ মানুষ
  • যোগ্য কর্মকর্তাদের হাতে নেতৃত্ব দেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
  • রবিবার মধ্যরাতে পঞ্চম ধাপের উপজেলা নির্বাচনের প্রচার শেষ
  • ক্যাম্প থেকে পালিয়ে গ্রামে গ্রামে ঢুকে পড়ছে রোহিঙ্গারা
  • ‘আরো আড়াই লাখ মেট্টিক টন ধান কিনবে সরকার’
  • আজ জাতীয় শিশু পুরস্কার-২০১৯ প্রদান করবেন রাষ্ট্রপতি
  • বিজিবি-বিএসএফ সীমান্ত সম্মেলন শুরু আজ
  • সূচকের পতনে চলছে লেনদেন
  • ১৯ জেলায় নতুন জেলা প্রশাসক

তৃতীয়বারের মতো মহাজোটের নিরঙ্কুশ জয়

awamivictory
বাংলার নিউজ ডট কমঃ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ২৯৯ আসনের মধ্যে ২৮৮ আসন পেয়ে বিশাল জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট। বিপুল ভোটে এই রেকর্ড জয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো সরকার গঠন করতে চলেছে ক্ষমতাসীন জোটটি। টানা তৃতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা।

টানা ১০ বছর ক্ষমতায় থাকা মহাজোট ঐতিহাসিক জয় পেলেও প্রধান প্রতিপক্ষ বিএনপির নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ভরাডুবি হয়েছে। ১৯৯১ সালের পর এবারই প্রথম বিএনপি সবচেয়ে কম আসন পেয়েছে। দলটির বেশ কয়েকজন প্রার্থীর জামানত বাজেয়াপ্ত হয়েছে। অনেক স্থানে মহাজোট প্রার্থীর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হয়েছেন ইসলামী আন্দোলনের প্রার্থীরা।

বিএনপি ৭ আসনে বিজয়ী হয়েছে। জাতীয় পার্টি পেয়েছে ২২টি আসন। গণফোরামের উদীয়মান সূর্য নিয়ে নির্বাচন করে একজন বিজয়ী হয়েছেন। জাতীয় পার্টি (জেপি) একটি আসনে জয়লাভ করেছে। স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন ২ জন।

এর আগে, ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ধারাবাহিক জয়ের সূচনা করেছিল আওয়ামী লীগ। ওই নির্বাচনে ২৬৪ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে আওয়ামী ২৩০ আসনে জয় পেয়েছিল। প্রতিপক্ষ বিএনপি ২৬০ আসনে লড়াই করে ৩০টিতে জয় পায়।

তত্ত্বাবধায়ক ইস্যুতে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করেছিল বিএনপি। ওই নির্বাচনে ২৪৭ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে আওয়ামী লীগ ২৩৪টিতেই জয় পেয়েছিল। এবার নিবন্ধিত ৩৯টি রাজনৈতিক দলের সবার অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হল একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন।

এবারের নির্বাচনে মহাজোটের রেকর্ড বিজয়ের পর আনন্দ মিছিল না করতে নেতাকর্মীদের নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এক বিবৃতিতে তিনি বলেছেন, এখন আনন্দ মিছিল করার সময় নয়, দেশ গঠনের সময়। কাজেই কোনো স্থানে কেউ আনন্দ মিছিল করবেন না।

এদিকে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক ড. কামাল হোসেন নির্বাচনের ফল প্রত্যাখ্যান করেছেন। রবিবার সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলন করে, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দাবি করেছেন তিনি।

বিভাগ - : জাতীয়

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন