November 13, 2019
  • কাঁদলেন প্রধানমন্ত্রী
  • যুবলীগ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী মিটিং ডেকেছেন : ওবায়দুল কাদের
  • ভুল বোঝাবুঝিতেই সীমান্তে দুর্ঘটনা : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • শেখ রাসেলের জন্মদিন আজ
  • তালিকাভুক্ত এবং আইপিও কোম্পানি অডিট করতে নতুন নির্দেশনা
  • ‘ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করার জন্য আগাছা পরিষ্কারের সিদ্ধান্ত’
  • লোমহর্ষক দুর্নীতির শেকড় আরো গভীরে: টিআইবি
  • ৪ উইকেটে জয় টাইগারদের
  • প্রথা ভেঙে বরের বাড়িতে এসে বিয়ে করলো কনে
  • জি কে শামীম ১০ দিনের রিমান্ডে

আপিলেও খালেদা জিয়ার আবেদন খারিজ

khaledamamla
বাংলার নিউজ ডট কমঃ জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বাদীর সাক্ষ্য বাতিল চেয়ে নতুন করে সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আপিল বিভাগ।
রোববার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চ হাইকোর্টের রায় বহাল রেখে এই আদেশ দেন। আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, এ জে মোহাম্মদ আলী, ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, ব্যারিস্টার রাগিব রউফ চৌধুরী এবং দুদকের পক্ষে আইনজীবী খুরশীদ আলম খান শুনানি করেন।

এর আগে সাক্ষ্য বাতিলে খালেদা জিয়ার আবেদন খারিজ করে দেন হাইকোর্ট। ওই রায়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়া আপিল বিভাগে আবেদন দায়ের করেন। আবেদনের ওপর আজ শুনানি অনুষ্ঠিত হয়।

শুনানি শেষে আপিল বিভাগ এই আবেদন খারিজ করে দেন। আপিল বিভাগের এই আদেশের ফলে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ এ এই মামলার বিচার কার্যক্রম চলতে আর বাধা থাকল না।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার বাদী দুদকের উপ-পরিরচালক হারুনুর রশীদের সাক্ষ্য গ্রহণ করে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩। খালেদা জিয়ার অনুপস্থিতিতে এই সাক্ষ্য গ্রহণ আইন অনুযায়ী হয়নি বলে আদালতে আবেদন জানান আইনজীবীরা। কিন্তু বিচারক আবু আহমেদ জমাদার আবেদন খারিজ করে দিয়ে সাক্ষ্য গ্রহণ বহাল রাখেন।

পরে বিশেষ জজ আদালতের আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিভিশন মামলা দায়ের করেন খালেদা জিয়া। হাইকোর্ট এই রিভিশন মামলা খারিজ করে রায় দেয়। এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করেন খালেদা জিয়া। শুনানি শেষে আপিল বিভাগও খালেদার আবেদন খারিজ করে দেন।

বিভাগ - : আইন ও অপরাধ

কোন মন্তব্য নেই

মন্তব্য দিন